Thursday , January 18 2018
Home / সারাবাংলা / শিশু মৌয়তির জীবনের মুল্য ১টি গরু সেটিও বাঁকি !

শিশু মৌয়তির জীবনের মুল্য ১টি গরু সেটিও বাঁকি !

তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি:
রাজশাহীর তানোরে ঠিকাদারের অবহেলায় শিশু মৌয়তি (৬) নিহতের ঘটনা ধামাচাঁপা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় প্রভাবশালী মহল নিহত শিশু মৌয়তির জীবনের দাম একটি গরু নির্ধারণ করছে তবে সেটিও এখানো নিহতের পরিবারকে দেয়া হয়নি বলেও অভিযোগ উঠেছে। এদিকে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসির মধ্যে চরম অসন্তোষের সৃষ্টি হয়েছে, উঠেছে সমালোচনার ঝড়। জানা গেছে, গত বছরের ১১ নভেম্বর শনিবার দুপুর উপজেলার কলমা ইউপির বনগাঁ চকরহমত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ল্যাট্রিনের সেফটি ট্রাংকিতে পড়ে মৌয়তি (৬) নামের এক শিশু নিহত ও দুজন আহত হয়। নিহত মৌয়তি (৬) শালবাড়ী সল­া পাড়ার গ্রামের (সাঁওতাল পল­ী) বদুরা হেমরমের কন্যা। আহতরা হলেন একই গ্রামের ডুলু সরেনের ছেলে মিঠুন সরেন (৭) ও জামিন হাসদার কন্যা সারতী হাসদা (৬) তারা সকলেই বনগাঁ চকরহমত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির শিক্ষার্থী বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শালবাড়ী সাঁওতাল পল­ীর একাধিক বাসিন্দা এবিষয়ে উচ্চ আদালতের রুল বা বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা ও লিগ্যাল এইডের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বনগাঁ চকরহমত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে চৈরখোর পর্যন্ত রাস্তা পাকা রাস্তার কাজ শুরু করেন ঠিকাদার লিটন। এদিকে ঠিকাদার লিটন বনগাঁ চকরহমত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ল্যাট্রিনের জরাজীর্ণ সেফটি ট্র্যাংকির ওপর রাস্তা নির্মাণের জন্য বিপুল পরিমাণ বালু রেখেছিলেন। শনিবার স্কুল ছুটির পর এসব শিশুরা বালির ওপর দিয়ে যাবার সময় সেফটি ট্র্যাংকির ছাদ ভেঙ্গে ল্যাট্রিনের হাউজের মধ্যে পড়ে যায়। এ সময় তাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন। কিšত্ত ততক্ষনে শিশু মৌয়তি মারা যায় ও অপর দু’শিশু গুরুত্ব আহত হয়। স্থানীয়রা শিশু মৌয়তির মূত্যুর জন্য ঠিকাদারকে দায়ি করে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে থানায় হত্যা মামলার প্র¯ত্ততি নেয়। কিšত্ত রাজনৈতিক পরিচয়ের একটি প্রভাবশালী মহল ঠিকাদারের কাছে থেকে বড় অঙ্কের আর্থিক সুবিধা নিয়ে ঠিকাদারকে বাঁচাতে ঘটনা ধামাচাঁপা দিয়ে আড়াল করার জন্য নানা অপতৎপরতা শুরু করে। এমনকি নিহত শিশুর পরিবারকে মামলা না করে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি আপোষ-মিমাংসার জন্য চাপ প্রয়োগ করে আপোষ-মিমাংসা করতে বাধ্য হয়। এদিকে শিশু মৌয়তির মূত্যুর জন্য তার পরিবারকে একটি (গাভী) গরু দেয়ার সিদ্ধান্ত দেন প্রভাবশালীরা। তবে এখানো মৌয়তির পরিবার সেই গরু পায়নি, কবে নাগাদ পাবে, বা আদৌ পাবে কি ? না ? সেটাও তারা জানাতে পারেনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঠিকাদার লিটন জানান, সেদিন তিনি সাইডে ছিলেন না। তিনি বলেন, হায়াত-মউতের ওপর কারো হাত নাই, আসলে এভাবেই তার মৃত্যু লিখা আছে এটা একটি দুর্ঘটনা মাত্র। তিনি আরো বলেন, কলমা ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার রশিদ ময়না বলেছেন তাদেরকে একটি গরু কিনে দিতে হবে আর তাঁরা গরু পালন করতে খুব পছন্দ করেন। এব্যাপারে কলমা ইউপির চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি লুতফর হায়দার রশিদ ময়না বলেন, একটি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে আদিবাসী শিশু মৌয়তির এখানে কারো দোষ নেই তাই ঠিকাদারকে বলেছি রাস্তার কাজ শেষ হলে তাদের একটি গরু কিনে দিতে হবে। এব্যাপারে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, শিশু মৌয়তি মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবার কোন ধরনের অভিযোগ বা মামলা না করায় ইউডি মামলা করা হয়েছে।

Check Also

পদ্মা ও আড়িয়াল খাঁয় ড্রেজার-ভেকু দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না

সদরপুর (ফরিদপুর) সংবাদদাতা : সদরপুর উপজেলার পদ্মা ও আড়িয়াল খাঁয় অবৈধভাবে ড্রেজার ও ভেকু দিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *